বর্তমানে সফল ফ্রিল্যান্সার হওয়ার উপায় এবং কিভাবে নিজেকে তৈরি করবো।

0
123

অনেকের মনে একটাই প্রশ্ন বর্তমানে সফল ফ্রিল্যান্সার হওয়ার উপায় গুলো কি এবং কিভাবে হবো। একটা সময় এতোটা চাহিদা ছিলো না এই বিষয়ে কিন্তু বর্তমান সময়ে অনেক বেশি। একটা কথা বুঝতে আর বাকি নাই, যেখানে কম্পিটিশন অনেক বেশি সেখানে সফল হওয়াটাও অনেক কঠিন এটা যেকোনো ক্ষেত্রেই। হ্যা যদি আপনি সঠিক গাইড মেনে কাজ করেন তবেই আপনি একজন সফল ফ্রিল্যান্সার হিসেবে নিজেকে গড়ে তুলতে পারবেন আর যদি গাইড না মেনে কাজ করেন তাহলে আপনার পক্ষে অনেকটাই কষ্ট হয়ে যাবে।

নিজেকে কিভাবে তৈরি করবো

আপনি যদিই সত্যিই ফ্রিল্যান্সার হতে চান তাহলে এখন থেকেই নিজেকে সফল ভাবা শুরু করুন। শুরুটাই যদি আপনি দূর্বলতা নিয়ে শুরু করেন তাহলে কিন্তু কোনো ভাবেই সেটাকে কাটিয়ে তোলা সম্ভব না। মনে মনে পতিজ্ঞা করুন যেভাবেই হোক না কেন আমাকে সফল হতেই হবে। তাহলেই একদিন দেখবেন আপনি পৌছে গেছেন আপনার লক্ষে।আরে ভাই যেদিন ঐ যায়গায় পৌছে যাবেন সেদিন থেকে তো আর এতোটা পরিশ্রম করতে হবে না সেদিন আপনি সবকিছু জানবেন নিজের ভূল নিজেই ধরতে পারবেন। তাহলে কেন আপনি এই কষ্ট করবেন না । আমি জানি এখনই সময় আপনার শিক্ষা নেওয়ার যদি তাই না হতো তাহলে আপনি এই পোস্ট পড়তে আস্তেন না। অতএব, ফ্রিল্যান্সিং নিয়ে ভাবা শুরু করুন কি করবেন আপনি সেটা নিয়ে চিন্তা করুন কোন বিষয় টি আপনার কাছে ইজি বা ভালো লাগে সেটা নিয়ে সময় ব্যায় করুন। সঠিক গাইড নেওয়ার চেষ্টা করুন কোথায় গেলে সঠিক গাইড পাবেন সেইদিকে ছুটুন কেউ আপনার বাসায় এসে কাজ শিখিয়ে দিয়ে যাবে না।আপনার কাজ আপনাকেই খুজে নিতে হবে। সফল ফ্রিল্যান্সার হওয়ার জন্য যা যা প্রয়োজন তা তা ই আপনাকে করতেই হবে । এভাবে শেখার জন্য নিজেকে তৈরি করুন।

ফ্রিল্যান্সিং শুরু করার আগে চিন্তা ভাবনা।

ফ্রিল্যান্সিং লেখাটা যেমন পেছানো ঠিক কাজ গুলোও এর মতো পেছানো কথা শুনে অনেকের হাশি পেতে পারে কিন্তু হাসার কিছুই নাই। মাঠে নামলেই বুঝতে পারবেন।নিম্ন কি বিষয় আপনার কাছে ভালো লাগে বা ইজি মনে হয় সেই দিকে খেয়াল রাখবেন।আরেকটি কথা বলে রাখাই ভালো সক বিষয়ের মান সমান কখনো এমনটা ভাববেন না যে আমি যেটা শিখতে যাচ্ছি এটার চেয়ে মনে হয় ওটা ভালো এই কথা চিন্তা করছেন তো গেছেন সামনে আর এগিয়ে যেতে পারবেন না।সব সময় এই কথাটাই মাথায় কাজ করা শুরু করবে যতক্ষন প্রর্যন্ত আবার এটাতে হাত না দিবেন।আর এভাবে একের পরে এক চেঞ্জ করতে যাবেন। শেখা আর হবে না এভাবেই দিন গুলো কেটে যাবে কিন্তু সফল ফ্রিল্যান্সার হওয়ার উপায় আর খুজে পাবেন না। আরে ভাই যে যা করে করতে থাকুক আপনার টা ছারবেন না। এক ভাই একটা বিষয় থেকে লাখ লাখ টাকা উপার্জন করতেছে সেটা দেখে মাথা নষ্ট করা যাবে না। ভাবতে হবে আমিও একদিন পারবো ইন্সাল্লাহ। আরে ভাই সে উপার্জন করতেছে ঠিক আছে কিন্তু সে সেটা শেখার জন্য কতোটা পরিশ্রম করেছে সেটা জানার কি কখনো চেষ্টা করেছেন।আমার মনে হয় না, কারো উপার্জন দেখে আমরা তাকে জিগাই যে ভাইয়া কি ভাবে করেন আমাকে একটু শেখান না কিন্তু এটা কখনো ভাবি না বা বলি না যে এটার পিছনে সে কি পরিমাণ পরিশ্রম করেছে।আপনার টা আপনি অর্জন করে নিন একদিন আপনিও পাবেন আশাকরি। এককথায় সবার মান সমান সবটা থেকেই ভালো পরিমাণ উপার্জন করা সম্ভব কিন্তু আপনাকে এক্সপার্ট হতে হবে। এই জগতে এক্সপার্ট ছারা কোনো মূল্য নাই যেখানেই যান না কেনো আপনাকে এক্সপার্ট হতেই হবে।

যে যে বিষয়ে সফল ফ্রিল্যান্সার হতে পারবেন

১। ওয়েব ডিজাইন। দিন দিন ওয়েব সাইটের চাহিদা বেরেই চলছে, নিউজ,বল্গ,ইকমার্স,পারসোনাল ও বিজনেস ওয়েব সাইট সহ বিভিন্ন ধরনের ওয়েব সাইট তৈরির চাহিদা অনেক ।সুধু তাই নয় আপনি যদি ট্যামপ্লেট বা থিম ডিজাইনার হতে পারেন তাহলে এগুলো তৈরি করে রেখে অনেক ওয়েবসাইটের মাধ্যেমে সেল করতে পারবেন।ওয়েব ডিজাইন বা ডেভেলম্যান্ট বিভিন্ন মার্কেট প্লেজে গেলেই বোঝা যায় তাই আপনি ওয়েব ডিজাইন শিখে দক্ষ হয়ে একজন সফল ফ্রিল্যানসার হতে পারবেন।

২। গ্রাফিক্স ডিজাইন। লোঘো,ব্যানার,পোষ্টাল, ভিজিটিং কার্ড সহ বিভিন্ন ধরনের ‍ডিজাইন শিখে আপনি একজন সফল ফ্রিল্যান্সার হতে পারবেন ।চাইলে বিভিন্ন ধরনের লোগো ভিজিটিং কার্র্ড তৈরি করে রেখেও বিভিন্ন ওয়েব সাইটের মাধ্যেমে সেল করতে পারবেন। তবে এখানে একটি মজার বিষয় হচ্ছে সুধু অনলাইন মার্কেটপ্লেজে নয় আপনি চাইলে অফলাইনেও এই বিষয় নিয়ে একটি ব্যাবসা প্রতিষ্ঠান করতে পারবেন। বর্তমানে দেশ বিদেশে প্রচুর পরিমাণ কম্পানি চালু হচ্ছে সেগুলো কম্পানির বিভিন্ন ধরনের গ্রাফিক্স ডিজাইন রিলেটেড প্রচুর কাজ থাকে অপনি অনলাইনে বা অফলাইনে কাজ কেরতে পারবেন।

৩। এস ই ও।এর মাসে সার্চ ইন্জিন অফটিমাইজিশন মানে যে কোন প্রকার ওয়েব সাইট গুগলে র‌্যাংক করাকেই এস ই ও বলে ।সাইটের চাহিদা যত বেশি এস ই ও এর চাহিদাও তেমনি । কারণ সুধু একটা সাইট করলেই হবে না সেটাকে বিভিন্ন সার্চ ইন্জিনে র‌্যাংক করতে হবে আর তা না করতে পারলে যে উদ্দেশ্য নিয়ে সাইট তৈরি করেছে সেটাতে সাকসেস না পাওয়ার সম্ভবনাই বেশি ।তাই একজন দক্ষ এস ই ও এক্সপার্ট হিসেবে নিজেকে গড়ে তুলতে পারেন।

৪।হ্যাকিং।আসলে আমরা এই শব্দটা শুনলেই অনেকে ভাবি হ্যাকিং মানে সুধু খারাপ কিছু কিন্তু না এই ধারনা আমাদের ভুল।এটির বেশ কিছু ধরন আছে এর মধ্যে এক টি হচ্ছে ইতিক্যাল হ্যাকিং আরেকটি হচ্ছে ব্লাক হাট হ্যাকিং ইতিক্যাল হ্যাকিং মানে ভালো বিষয় এটি দেশের সিকুরির জন্য অনেক গুরুত্বপূর্ন । আর ব্লাক হাট হ্যাকিং মানেই আমি মনে করি চুরি করা বা মেরে দেওয়া আসলে এটি যারা করে তাদের কেউই দেখতে পারে না। তাদের আইনগত ভাবেও ধরার নিয়ম আছে তারা দেশের জন্য ক্ষতিকর ।তাবে ইতিক্যাল হ্যাকিং শিখে আপনি নিজেকে সফল ফ্রিল্যান্সার হিসেবে নিজেকে তৈরি করতে পারবেন ।

৫।ডাটা এন্টি।যদিও এই কাজ গুলো একদম ইজি অনেক সময় ক্লাইন্ট নিজেই বলে দেয় কাজ গুলো কিভাবে করতে হবে ।কিন্তু তারপরেও আপনার নিজের কিছু দক্ষ থাকতে হবে নয়তো কাজের ক্ষেত্রে অনেকটা সমস্যার সম্মুখিন হতে হবে ।যাদের কঠিন কাজগুলো সেখা সম্ভব না তারা চাইলে এই বিষয়ে শুরু কেরে দিতে পারেন।এখানে একটি মজার বিষয় হচ্ছে এই কাজ গুলো শিখতে কোনো কোর্স করা লাগে না ইউটিউব দেখে দেখেই এই বিষয়ে ভালো একটা জ্ঞ্যান অর্জন করা সম্ভব হয়।

উপরোক্ত এই পাচঁটি বিষয় সহ যে কোন বিষয়ে দক্ষ হয়ে নিজেকে আপনি একজন সফল ফ্রিল্যান্সার হিসেবে গড়ে তলেতে পারবেন । তবে কিছু কথা না বললেই নয় কখনো কাজ না জেনে কাজ নিবেন না এদে নিজের ক্ষতি পরবর্তীতে ঐ ক্লাইন্ট কাজ না দেওয়ার সম্ভবনা বেশী । আর যদি নিয়েই নেন তাহলে অবশ্যই এক্সপার্ট কারো হেল্প নিয়ে কাজটি উঠিয়ে দিবেন ।সবসময় ক্লাইন্টের চাহিদামত কাজ করার চেষ্টা করবেন । এতে ক্লাইন্ট অনেক খুশি থাকে আর যদি আপনাকে ভালো লেগে যায় তাহলে কোন কথাই নাই তখন এক ক্লাইন্টের কাজ করে সময় পাবেন না।মনে রাখবেন একজন সফল ফ্রিল্যান্সার হওয়ার উপায় সবসময় মাথা ঠান্ডা রেখে সবকিছু করবেন এতে কাজ করেও মজা কাজও ভালো হয় ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here