মোবাইল দিয়ে ফ্রিল্যান্সিং করা সম্ভব? কিন্তু কিভাবে শুরু করবেন

0
66

এখন প্রায় অনেকেই মোবাইল দিয়ে  ফ্রিল্যান্সিং করছেন আবার অনেকেই সঠিক গাইড না পাওয়ার কারণে দিন দিন হতাশ হচ্ছেন। আসলেই মেইন হচ্ছে গাইড টাই আপনি যদিন সঠিক গাইড পেয়ে থাকেন তাহলেই আপনার পক্ষে যে কোনো বিষয়েই সাকসেস আনা সম্ভব। আজকে আমি আপনাদের স্টেপ বাই স্টেপ আইডিয়া দেওয়ার চেষ্টা করবো ইন্সাল্লাহ।

মোবাইল দিয়ে ফ্রিল্যান্সিং শুরু করার আগে চিন্তা ভাবনা ও ভুল ধারণা

আপনি হতে চলছেন ফ্রিল্যান্সার তাহলে অবশ্যই আপনাকে এর কিছু ধারণা মাথায় রাখতেই হবে। মোবাইল আর পিছি দুটোর মধ্যে অনেক পার্থক্য আছে পিছি দিয়ে যে সকল কাজ করতে পারবেন মোবাইল দিয়ে সেটা পারবেন না। আবার মোবাইল দিয়ে যেটা পারবেন সেটা পিছি থেকেও হবে না এর মানে কি মোবাইল দিয়েও ভালো একজন দক্ষ ফ্রিল্যান্সার হওয়া সম্ভব। আমি একটা গল্প বলি আমা একজন ছাত্র আমার এখানে ভর্তি হবে ফ্রিল্যান্সিং শেখার জন্য কিন্তু তার ল্যাপটপ নাই। আমাকে বলতেছে ভাইয়া চলুন আমাকে একটি হাই কনফিগারেশন দেখে ল্যাপটপ কিনেদিন আমার সাথে থেকে।ভাই আমি জব করি সেটা আর ভালো লাগে না অনেকের ইনকাম দেখে।  আমি বললাম কেন?  উত্তরে বলল আমি ফ্রিল্যান্সিং কোর্স করবো আপনার এখানে তারপর কাজ করবো ভাই ল্যাপটপ দিয়ে। আমি বললাম গুড আইডিয়া কিন্তু একটা কথা আপনি কোর্সটি করবেন ভালো কথা কিন্তু কোর্স শেষ হউয়ার সাথে সাথেই যে ইনকাম করবেন সেটা কি আপনার পক্ষে সম্ভব হবে। বলে ভাই আমাকে যেই জিনিস একবার দেখাইয়া দিবেন আমি সেটাই পারবো। বলাম ভাই তাহলে আপনার পক্ষে সম্ভব না আমি সিওর। আমার কথা শুনে মোনটা খারাপ করে বলল কেন ভাই। বললাম এক নাম্বার ভুল অন্য জনের ইনকাম দেখে পাগল হইছেন কিন্তু জানেননা ঐ ইনকামের পিছনে সে কি পরিমাণ কষ্ট আর পরিশ্রম করেছে এবং  আপনি কি কখনো সেটা শোনার প্রয়োজন করেছেন ।আরেকটা ভুল আজ কোর্স শেষ হউয়ার আগেই আপনি ইনকামের চিন্তা ভাবনা শুরু করছেন আপনি জানেন কেউ কেউ চার পাচ বছরেও কিছুই করতে পারে নাই।ভাই জতটা সহজ মনে করেন ঠিক ততটা সহজ নয় টাকা উপার্জন করতে কেমন কষ্ট সেটা আর আপনাকে বলতে হবে না কারণ আপনি নিজে জব করে উপার্জন করতেছেন এবং বুজছেন যে কেমন। তাই বলি ভাই কখনো শুধু পজিটিভ নিয়ে ভাববেন না আগে নেগেটিভ নিয়ে ভাববেন। একটা কথা বলি আপনি প্রথমে ভালোবাবে শিখুন সেটা নিয়ে ঘাটাঘাটি করুন এবং আপনার হাতে যেই ফোনটা আছে সেটা নিয়ে চেষ্টা করুন। কারণ আমাদের হাতে এখনকার সময় অনেক ভালো ভালো মোবাইল ফোন থেকে থাকে যা দিয়ে অনেক কিছুই করা সম্ভব। এখনকার মোবাইল পিছির কোন অংশ কম নয় হয়তো কিছু কিছু কাজ আছে সেগুলো পিছি থেকেই করতে হবে।আরে ভাই আপনি আগে কিছু কাজ মোবাইল দিয়েই চালিয়ে জান না যখন দেখবেন না আপনাকে দিয়ে হবে তখন আপনি না হয় একটি ভালো মানের ল্যাপটপ নিয়ে নিলেন। আপনি অনেক সপ্ন নিয়ে একটি ল্যাপটপ কিনলেন কিন্তু কাজে আসলো না তখন আপনার টাকা টা লছ। যদিন পারসোনাল ব্যবহারের জন্য কিনে থাকেন সেটা অন্য ব্যাপার। আমি সবাইকেই এই কথাটা বলছি না আমি তাদেরই বলছি যাদের আর্থিক প্রবলেম বা আর্থিক দিক দিয়ে সমস্যা।  আরে ভাই আমারা যারা ইনকামের আশায় ঘুরাঘুরি করি আমি মনে করি সবারই আর্থিক সমস্যা তা না হলে কখনো উপার্জনের আশায় ঘুরতাম না। হতাশ হউয়ার কিছুই নাই মোবাইল দিয়েও ফ্রিল্যান্সিং করা সম্ভব এবং ইজি।

কিভাবে মোবাইল দিয়ে ফ্রিল্যান্সিং করবেন

প্রথমে আপনাকে ভাবতে হবে আমি কি কি কাজ করতে পারবো মোবাইল দিয়ে সেগুলো খুজে বের করতে হবে এরপর সেগুলোর চাহিদা আছে কিনা অর্থাৎ কাজগুলো মার্কেটপ্লেসে চলবে কিনা যদি চলে তাহলে সেই কাজের উপর ভালো ভাবে দক্ষতা অর্জন করতে হবে। নিজে চেক করতে হবে এই কাজ আমি মোবাইলদিয়ে সঠিক ভাবে করতে পারি কিনা একবার নয় বার বার করে দেখতে হবে যখন দেখবেন পারতেছেন তখনই ফ্রিল্যান্সিং করার জন্য মার্কেটপ্লেস এ জাবেন। তবে মোবাইল দিয়ে বড় ধরনের কোন কাজ করতে পারবেন না যেমনঃ গ্রাফিক্স ডিজাইন, ওয়েব ডেভেলপমেন্ট,  কোডিং ইত্যাদি এই ধরনের কাজ গুলো সম্ভব হবে না। তবে তাতে কি আপনি যদি ছোট ছোট কাজেই এক্সপার্ট হতে পারেন তাহলে কাজের কোন অভাব থাকবে না।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here