কম্পিটিটর এনালাইসিস কিওয়ার্ড রিসার্চ কি? র‍্যাংক এর জন্য গুরুত্বপূর্ণ ।

0
105

ওয়েবসাইট তৈরি করার পূর্বে যে সকল চিন্তা ভাবনা করবেন তার মধ্যে কম্পিটিটর এনালাইসিস ও কিওয়ার্ড রিসার্চ এই দুইটি বিষয়ে আপনি এক্সপার্ট হতে পারলে ৮০% আপনি ব্লগিং বা এফিলিয়েট মার্কেটিং এ সাকসেস হতে পারবেন। আমি যখন অনলাইন জগতে কাজ শুরু করি ২০১৪ সালের কথা তখন এই বিষয় গুলি আমি কিছুই বুজতাম না।যার কারণে ভালো একটা পজিশন ও পাইতাম না। এরপর যখন একটু একটু বুজতে শুরু করি আর তখন দেখি ছাইট তীরের মত র‍্যাংক করতেছে গুগল থেকে ভিজিটর ও মৌমাছির মত ছুটে আসছে। তাই আর চিন্তা ভাবনা না করে এই সেকশন গুলোর দিকে একটু মনোযোগী হই।

শুরুতেই গুরুত্বপূর্ণ কিছু কথা

এই বিষয় গুলি বুঝতে নতুনদের অনেক কষ্ট করতে হবে এবং অনেক ঝামেলা মনে হবে কিন্তু একবার বুঝে গেলে তখন এর মজা বুঝতে পারবেন। তখন যেকোন ওয়েবসাইট ইজিলি র‍্যাংক করাতে পারবেন।তাই কম্পিটিটর এনালাইসিস কিওয়ার্ড রিসার্চ এই দুইটি বিষয় বুঝতে হলে আপনাকে প্রচুর পরিমান গুগল করতে হবে এবং প্রতিটি ওয়েবসাইট সম্পর্কে জানতে হবে। আজকে আমি যেভাবে বলব ঠিক সেভাবে আপনাকে মনোযোগ দিয়ে প্রতিদিন রিসার্চ করতে হবে নয়তো এই বিষয় গুলি আওতায় আনতে অনেক কষ্ট হয়ে যাবে।আমি চাই আপনি কাজ শুরু করার পূর্বে এই খুটিনাটি বিষয় সম্পর্কে আপনি আগে ভালো ভাবে যেনে নিন কারন না জেনে কাজ শুরু করা থেকে জেনেশুনে শুরু করুন এতে টাকাও বেচে জাবে আবার সাইট র‍্যাংক করাতে সময় ও কম লাগবে। আর না জেনে শুরু করলে আপনাকে অন্যকে হায়ার করা লাগতে পারে আর হায়ার করলে আপনার মনের মত কাজ ও হয়তো আপনি নাও পেতে পারেন।

টুল এর সাথে পরিচয়।

আমরা দুটি ভাবে এই কাজ গুলি করতে পারি তার মধ্যে একটি হলো পেইড টুল কিনে আরেকটি মেনুয়ালি রিসার্চ করে। তবে পেইড টুল কিনলেও আপনাকে মেনুয়ালি রিসার্চ করতে হবে। সুধু টুল এর উপরে নির্ভর করলে হবে না।মেনুয়ালি চেক করে যদি আপনি মনে করেন আপনার কাছে ইজি হবে তাহলে আপনি শুরু করতে পারেন।পেইড টুল শুধু আপনাকে সময় বাচিয়ে দিবে এবং ইজি কিওয়ার্ড গুলো সহজেই আপনার সামনে এনে দিবে। আর মেনুয়ালি কিওয়ার্ড রিসার্চ করতে গেলে অনেক সময় নিয়ে কিওয়ার্ড খুজে বের করতে হবে তারপর সেগুলি রিসার্চ করতে হবে।

যেভাবে কিওয়ার্ড রিসার্চ করবেন

ফ্রীতে রিসার্চ সাজেশন দিবে এমন অনেক টুল পাওয়া যায় ইউটিউবে অথবা গুগলে কিওয়ার্ড রিসার্চ টুল লিখে সার্চ করে একটু খুজলেই পেয়ে যাবেন। নতুন হিসেবে ফ্রি টুল ব্যবহার করাই উত্তম এতে কাজ শিখা ভালো হয় টাকাও খরচ হয় না। ফ্রিতে কয়েকটি টুলস এর নাম বলে দিচ্ছি
১। ইউবার সাজেস্ট
২। ইএম এস এভরিঅয়ার
৩। কিওয়ার্ড রিসার্চ ডট আই ও
এরপর আপনার নিস রিলেটেড কিছু হাই সার্চ ভলিয়ম কিওয়ার্ড খুজে বের করবেন। এরপর সেগুলো একটি একটি করে গুগল করবেন দেখবেন গুগল সার্চ বক্সের নিচে অনেক কিওয়ার্ড সাজেস্ট করেছে আপনি প্রতিটি কিওয়ার্ড এক্সেল সিট এ এন্ট্রি করুন এছাড়াও উপরোক্ত টুল সহ অনেক ফ্রী টুল আছে সগুলো দিয়ে যত কিওয়ার্ড খুজে পান সব আপনার এক্সেল সিটে এন্ট্রি করে রাখুন। এছারাও যত প্রকার সিস্টেম আপনি খুজে পান প্রতিটি সিস্টেম থেকে যত কিওয়ার্ড পান সবগুলো কিওয়ার্ড আপনি আপনার সিটে রেখে দিন। তবে একটি কথা হচ্ছে হাই সার্চ ভলিয়ম এবং সর্ট কিওয়ার্ড নেওয়ার প্রয়োজন নাই সেগুলো দিয়ে সুধু আপনি লো সার্চ ভলিউম এবং লং টেল কিওয়ার্ড খুজে বের করবেন।এগুলোর কম্পিটিটর এমনিতেই অনেক বেশি থাকে নতুন ওয়েবসাইটের পক্ষে কোনো ভাবেই র‍্যাংক করা সম্ভব হবে না তাই এগুলো নেওয়ার দরকার নেই। পেইড টুল হলে এতো কিছু করার দরকার ছিলো না জাস্ট একটু বলে দিলেই সে সকল প্রকার ইজি কিওয়ার্ড খুজে বের করে দিবে।সেগুলো হালকা মেনুয়াল দেখে নিয়েই কাজ শুরু করতে পারবেন। তাহলে এবার এই কিওয়ার্ড গুলির কম্পিটিটর এনালাইসিস এর পালা এটি কিন্তু গুরুত্ব সহকারে করতে হবে নয়তো অনেক বিপদে পরবেন।

যেভাবে কম্পিটিটর এনালাইসিস করবেন

সিটে থাকা কিওয়ার্ড গুলির মধ্যে থেকে একটি একটি করে নিয়ে গুগলে সার্চ করুন এরপর টপ ১০ টি মানে প্রথম দশটি ওয়েবসাইট এর পিএ ডিয়ে দেখুন এগুলো দেখার জন্য একটি ফ্রি টুল আছে আপনি চাইলে গুগল ক্রমে এক্সটেনশনে এড করে রেখে দিতে পারেন। রেখে দিলে সার্চ করলেই অটোমেটিক পিএ ডিএ শো করবে। ওকে পিএ ডিয়ে দেখার পর যদি দেখেন ২০ এর বেশি আছে তাহলে আপনি সেগুলো কিওয়ার্ড নিয়ে না এগোনোই ভালো। যেগুলো কিওয়ার্ড সার্চ করলে পিএ ডিয়ে ২০ এর কম আসে সেগুলো সাইট ওপেন করে করে তাদের আরটিকেল গুলি দেখবেন এবং allintitle:কিওয়ার্ড। লিখে সার্চ করে দেখবেন কত গুলি ছাইটে সেম কিওয়ার্ড টাইটেল এ আছে যদি সেম না থাকে তাহলে আপনার জন্য প্লাস পয়েন্ট। কারন গুগল একটি সাইটের অনেক কিছু দেখে র‍্যাংক দেয় তার মধ্যে এটি একটি। আর যদি টাইটেল এ থেকেই যায় তাহলে দেখবেন কতটি সাইটের টাইটেল এ আছে এবং সেগুলো যদি মনে করেন তাদের আরটিকেল এর অবস্থা ভালো না। তাহলে আপনি সেই কিওয়ার্ড দিয়ে আরটিকেল লেখা শুরু করে দিতে পারেন। আর সব সময় কম্পিটিটর এর সাইট এর থেকে আপনার আরটিকেল এর মান যেনো ভালো হয় সেদিকে সব সময় খেয়াল রাখবেন।এক কথায় আপনার যেই কিওয়ার্ড এর মাধ্যমে যদি আপনি মনে করেন এটি নিয়ে আরটিকেল লিখলে আমার বা আমার ক্লাইট এর সাইট ইজিলি র‍্যাংক করবে তাহলে আপনি কোন প্রকার চিন্তা ভাবনা না করেই শুরু করে দিতে পারেন। অবশ্যই শিওর হয়ে কাজ করবেন প্রয়োজনে দুই একটা কিওয়ার্ড খুজেবের করে এক্সপার্ট একজনকে দেখাবেন।অনেক সময় দেখা যায় নিজে শিওর হয়েও কিছু কিছু কারণে ব্যার্থ হতে হয় সো সময় নিয়ে ভালোভাবে একটি কিওয়ার্ড ফাইনাল করবেন।

কম্পিটিটর এনালাইসিস কিওয়ার্ড রিসার্চ এর ইজি মেথড

কিছু কিছু সাইট আছে জেগুলো আমাদের কম্পিটিটর না, অনেক সময় নতুন অনেকে ভেবে নেয় যে ফেসবুক প্রথমেই তাহলে তো র‍্যাংক করা সম্ভব না। সেগুলোর কিছু সাইটের লিস্ট আমি এখানে উল্লেখ করছি।

১। কোনো প্রকার সোস্যাল ছাইট আমাদের কম্পিটিটর না।
২। প্রশ্ন উত্তর সাইট
৩। ডাইরেক্টরি সাইট
৪। ই-কমার্স ওয়েবসাইট
৫। ফরাম সাইট।
উপরের এই সাইট গুলো আমাদের কম্পিটিটর নয়। আমরা কোনো কিওয়ার্ড লিখে সার্চ করি তাহলে যদি রেজাল্টে এই সাইট গুলি প্রথম ১০ টিতে আসে তাহলে ঐ কিওয়ার্ড দিয়ে আপনি ভালো একটি আরটিকেল লেখা মাত্রই আপনার সাইট ইজিলি র‍্যাংক করবে। যতই ওদের টাইটেল এ আপনার সেম কিওয়ার্ড থাকুক তার পরেও আপনার সাইটই র‍্যাংক এ আসবে কারণ ঐ কিওয়ার্ড লিখে কোন প্রকার নিস বা ব্লগ সাইট আরটিকেল লিখে নাই যার কারনে ঐ সব সোস্যাল সাইট র‍্যাংক করে বসে আসে। আমার এক পরিচিত ব্যক্তি আছেন তিনি শুধু ঐ কিওয়ার্ড গুলো নিয়েই কাজ করে ন। আর তার প্রতিটি কিওয়ার্ড ইজিলি র‍্যাংক করে বসে থাকে।সে অনেক সময় নিয়ে একটি কিওয়ার্ড খুজে বের করে ফাইনালি আরটিকেল লেখার পূর্বে সে আবার ভালোভাবে চেক করে এরপর সেই কিওয়ার্ড এর উপর ভিত্তি করে এস ই ও ফ্রেন্ডলি আরটিকেল লিখে এরপর অনপেজ এস ই ও করে পাবলিস করে ১২/১৫ দিনেই সেটা র‍্যাংক এ চলে আসে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here