আজ থেকে শুরু অনলাইন ইনকাম মোবাইল দিয়ে এ টু জেট গাইড

0
123

অনেকের প্রশ্ন অনলাইন ইনকাম মোবাইল দিয়ে কীভাবে করে এটা কি সম্ভব! আবার অনেকে অনেক ভাবে চেষ্টা করে কিন্তু সফলতা না পেয়ে হতাশ হয়ে ফীরে যেতে হয়। বিগত কয়েক দিনে অনেকের প্রশ্ন একটাই ছিলো একই উত্তর বার বার দিতে হয় আর তাই বসে পরলাম দেখা যাক আপনাদের জন্য কি লিখতে পারি সবার জন্য তো আর সমান কিছু করতে পারবো না। তবে হ্যা যদি মনে করেন কিছু একটা মোবাইল দিয়েই করবো তাহলে একটু মনোযোগ দিয়ে পড়ুন পুরোপুরি না পড়ে কোনো প্রকার মন্তব্য করবেন না আশা করি।

অনলাইন ইনকামের জন্য দক্ষতা অর্জন

প্রথমেই দক্ষতার কথা বললে অনেকেই রেগে যাবেন! রাগারাগি করার দরকার নাই ঠান্ডা মাথায় পড়ুন। আমি মনে করি আপনার দক্ষ নাই আবার বলবেন কিভাবে আপনি জানেন হ্যা আমি জানি আর জানি বিধায় কোন না কোন মাধ্যমে আপনাকে আমার এই পোস্টে আন্তে পেরেছি। আবার ভুল বুঝবেন না আমাকে আসলেই আমি সঠিক গাইড দেওয়ার জন্য এবং সঠিক তথ্য দেওয়ার জন্য এই কথা গুলি আপনাকে বলছি এছাড়াও অনেক কথা উঠে আস্তে পারে যাইহোক  ইনকামের মূল কথাই হোল দক্ষতা। এটা থাকলে আপনি যে কোন ভাবেই হোক অনলাইন ইনকাম মোবাইল দিয়ে ই করতে পারবেন। ধরুন আপনি একজন ছাএ আপনি যেকোন সালে এস এস সি পাশ করেছেন এখানে সার্টিফিকেট টা কি?  এটা একটা অর্জন মানে আপনি কিছু দক্ষতা অর্জন করেছেন যার কারনে এটা পেয়েছেন। আর এটা পেতে আপনাকে ১০ বছর পড়াশোনা করতে হয়েছে এবার আপনিই বুঝুন? এখানেই শেষ নয় এরপর চাকুরীর জন্য ঘুরাঘুরি তারপর তো ইনকাম সে অনেক কথা।আবার ধরুন আপনি একজন মোবাইল মিস্ত্রী তাহলে এবার হিসাব করুন একজন দক্ষ মিস্ত্রি হতে আপনার কত দিন সময় লাগবে এরপর সেই অভিজ্ঞতাকে কাজে লাগিয়ে বিজনেস বা চাকুরী এটাও অনেক সময়ের ব্যাপার। এর মানে কী যেকোনো কাজ করতে জান না কেন সময়,শ্রম,মেধা, সবকিছু খটিয়ে আপনাকে প্রথমে দক্ষতা অর্জন করতে হবেই।আর যদি না পারেন তাহলে অনলাইন আপনার জন্য না।অনেকে বলে ভাই আমি এই কাজ করতে পারি? আরে ভাই কাজ যেহেতু পারেন তাহলে প্রবলেম কী লেগে পড়ুন। তখন আবার অনেকেই বলেই পেলে ভাই কিভাবে শুরু করুম কই থেকে?  বুঝতে পারছেন ব্যাপার টা কথায় আছে না ঘোড়ার আগেও যেতে নাই পিছনেও যেতে নাই। ফাইনাল কথা যখন আপনার দক্ষতা অর্জন হবে তখন আপনি নিজেই বুজতে পারবেন এখন আমাকে কি করতে হবে কই থেকে করতে হবে।

কী পরিমান সময় দরকার কিভাবে সময়কে কাজে লাগাবেন?

অবশ্যই সময়ের একটা ব্যাপার আসে হ্যা তবে অনলাইনে কাজের কোনো নির্দিষ্ট সময় নেই। আপনার যখন ইচ্ছে তখনই কাজে লাগাতে পারবেন কেননা যারা অনলাইনে কাজ করে তাদের বলা হয় ফ্রিল্যান্সার আর এটার মানে হচ্ছে উন্মুক্ত পেশা যার কারনে এই কাজের কোনো সময় সিমা নেই। কাজ আছে কাজ করবেন কাজ নাই কাজ করবেন না এর মধ্যেও কিছু কথা আছে আপনি যদি অনলাইনে নিজের কোন বিজনেস করেন তাহলে কিন্তু সময় টাকে আপনাকেই খুজে বের করতে হবে বা সময় একটু বেশিও দেওয়া লাগতে পারে কারণ এটা আপনার বিজনেস আর নিজের বিজনেসে সব সময় চাহিদা টা একটু বেশিই থাকে।আবার যদি অন্যকে দিয়ে কাজ করান তাহলে কিন্তু দিন শেষে একটু বসে রিপোর্ট টা চেক করলেই হবে। এছাড়াও যদি অন্যর কাজ করেন তাহলে তো কন্টাকে বলেই নিবেন আমি এই সময় এতোটুকু সময়ের মধ্যেই করে দিবো এক কথায় সবকিছু আপনার উপর নির্ভর করবে।

ইনভেস্ট মানে বিনিয়োগ কি পরিমাণ

এবার যায়গা মতো হাত দিয়েছি!  ভাই আমি আগেই বলেছি দক্ষতা, যার দক্ষতা আছে সে নিজেই জানবে বা বুজবে কথায় কি পরিমাণ ইনভেস্ট করতে হবে। ধরুন আপনি অনলাইন ইনকাম  মোবাইল দিয়ে করবেন কিন্তু আপনি এটাই জানেন না কি পরিমাণ ইনভেস্ট করতে হয়। না জেনে হুট হাট করে ইনভেস্ট করে ফেললেন তাহলে ভাই আমের আম ও যাবে ছালার ছালাও যাবে।আবার যেনে শুনে লক্ষ লক্ষ টাকা ইনভেস্ট করলেন তাহলে দুই দিন আগে আর পড়ে  সেখান থেকে ফল আসবেই।অতএব, না জেনে একটি টাকাও ইনভেস্ট করা জাবে না যেনে আপনে ইচ্ছে মতো বিনিয়োগ করতে পারবেন।তবে হ্যা বিনিয়োগ করলে শেখার পিছনে করুন যত টাকা ইনকামের আশায় করবেন তত টাকা কিছু শেখার পিছনে করুন আশা করি ভালো কিছুই পাবেন। আবার হ্যা এমন যায়গায় শিখতে যাইয়েন না যেখানে গেলে যতটুকু অর্জন ছিলো সেটাও হারানোর  সম্ভাবনা আছে।সো সব কিছু যেনে শুনে সঠিক সিদ্ধান্ত নিবেন আর এই সিদ্ধান্ত একান্ত আপনাকেই নিতে হবে। ভুলক্রমে কিছু হয়ে গেলে এটার দায় ভার কেউ বহন করবে না।

অনলাইন ইনকাম মোবাইল দিয়ে কি করবেন তাহলে

হায়রে ভাই এতো কিছু বললাম এখোনো মাথা থেকে ইনকামের ধান্দা যায় নাই।  যাবে যাবে যখন কিছু শিখতে পারবেন তখন এম্নিতেই বলবেন ভাইয়ের পোস্ট টা পড়ে অনেক উপকারে এসেছে। তাহলে এবার কিছু অনলাইন ইনকাম মোবাইল দিয়ে করবেন এগুলো নিয়েই আলোচনা করি। ধরে নিন আপনি ভালো একজন দক্ষ রাইটার মোবাইল দিয়ে খুবি দ্রত গতিতে টাইপ করতে পারেন তাহলে কিন্তু আপনার জন্য অনেক রাস্তা আসে কারন আমরা সবাই কম বেশি জানি মোবাইল দিয়ে টাইপ করা যায়। এর মানে কি এই ধরনের যে যে কাজ আছে সব কিছুই করতে পারবেন। কই করবেন তাহলে ( আবারো কিন্তু সেম প্রস্ন আমি আগেই বলেছি দক্ষতার কথা) যাইহোক মনে করে দিলাম তাহলে ভাবুন যে টাইফ রিলেটেড কি কি কাজ আছে। মারকেট প্লেজে কাজ করবেন হ্যা করতে পারেন যদি আপনি ভাবেন যে আমাকে দারা সম্ভব। আবার ভাবলেন যে একটা নিউজ ওয়েবসাইট কোরবো হ্যা করতে পারেন তাও কোন প্রবলেম নাই। কিন্তু এটা ভাইবেন না যে আমি মোবাইল দিয়ে ওয়েব ডিজাইন / ওয়েব ডেভেলপমেন্ট করবো কারণ এগুলো করতে কোডিং করতে হয়। আর কোডিং কিন্তু মোবাইল দিয়ে সম্ভব না। সো ভেবে চিন্তে সব কিছুই করবেন।আবার অনেকে  গ্রুপে গ্রুপে পোস্ট করে এখান থেকে অখান হাজার হাজার টাকা ইনকাম করা সম্ভব। এগুলার দিকে ভুলেও তাকানো যাবে না।  ভাই আপনি তো প্রফেশনাল কিছু করতে পারেন সো কেন এগুলো নিয়ে মাথা ঘামাবেন এই সব চিন্তা ভাব না মাথায় থেকে ঝেরে ফেলে দিন।

প্রফেশনাল কি কি কাজ মোবাইল দিয়ে হবে।

১। রাইটিং: বর্তমানে প্রচুর চাহিদা আরটিকেল রাইটিং এর প্রচুর মুল্যে এইসব কাজের অল্প সময় ব্যায় করে ভালো পরিমাণ উপার্জন করা সম্ভব এই সেকশন থেকে।

২। ব্লগ কমেন্ট: গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয় ব্লগ কমেন্ট ব্যাকলিংক এর চাহিদা দিন দিন বেরেই চলছে আপনি চাইলেই কাজ শিখে মোবাইল দিতেও করতে পারবেন।

৩। ইউটিউব মার্কেটিং: অনেক জনপ্রিয় এখন অনেকেই মোবাইল দিয়েই শুরু করে দিয়েছে চাইলে আপনিও ট্রায় করে দেখতে পারেন।

৪।ওয়েবসাইটঃ রাইটিং এক্সপার্ট কিন্তু কাজ পাচ্ছেন না আর দেরি নাই কিওয়ার্ড রিসার্চ করে শুরু করে দিন।মান সম্মত একটি নিউজ/ব্লগ ছাইট দার করান গুগল এডসেন্স ওথবা যে কোন কোম্পানির এড নিন। কয়েক বছর পরিশ্রম করলেই বসে থেকে ইনকাম।

৫। সোস্যাল প্রফাইলঃ অনেক সময়ের একটি কাজ তার পরেও দার করাতে পারলে লাভ আছে। অনেক কাজে কাঠানো যায়।

যা যা করা যাবে না

১। ইনকামঃ সব সময় লং টাইমের চিন্তা করতে হবে আজ শুরু করলেন কাল থেকেই ইনকাম শুরু।  এরকম চিন্তা মাথায় থেকে ফেলে দিন।সব সময় ভাবুন ভবিষ্যৎ নিয়ে আজকের জন্য নয় আগামীর জন্য।

২। আজ এটা কাল আরেক টা এইসব চিন্তা মাথায় আনলে সব শেষ। ভাবতে ভাবতেই দিন যাবে। কিছুই করা হবে না।

৩।যে বলে আয় রে তার পিছনে যাইরে কথাটা যদিও আগেই বলেছি সো হুট হাট করে কিছুই করা যাবে না।

৪। মোবাইল দিয়ে করা যায় না এ রকম কাজের চিন্তা ভুলেও আনা যাবেন না। যেহেতু মোবাইল দিয়ে ইনকাম করতে ইচ্ছুক  তাহলে এটার শেষ দেখেই ছারুন।

৫। অগোছালো ভাবে কোন কাজ করা যাবে না, যে আগে ইনকাম আসুক তারপর সব ঠিক করবো। এই চিন্তা ভুলেও মাথায় আনবেন না।প্রফেশনাল তো প্রফেশনাল শুরু থেই সব।

আশা করছি উপরোক্ত বিষয় গুলো সঠিক ভাবে বুঝাতে পেরেছি।আসলে ইনকাম করাটা অনেকটাই কঠিন সেখানে যান না কেন কম্পিটিশন অনেক বেশি। এর মধ্যে থেকেই খুজে নিতে হবে আপনাকে একটু কষ্ট করে ভালো কিছু করুন  আশা করছি আপনিও পারবেন অনলাইন ইনকাম মোবাইল দিয়ে।যদি যে কোন বিষয়ে কোন সমস্যা বা হেল্প এর দরকার হয় তাহলে অবশ্যই যোগাযোগ করার ব্যবস্থা করবেন। সমাধান করার চেষ্টা করবো ইন্সাল্লাহ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here